শিরোনাম
গুলিস্তানে তৈরি হতো ফোন, লেখা ‘মেড ইন চায়না-ফিনল্যান্ড’ বাংলাদেশকে ২৮৫৪ কোটি টাকা ঋণ দিলো বিশ্বব্যাংক ইউক্রেনকে অস্ত্র দেয়া বন্ধ করুন: পশ্চিমা বিশ্বকে ব্রিটিশ রাজনীতিক টাঙ্গাইলে বাবাকে মেরে মসজিদের মাইকে প্রচার, ছেলে আটক খুলনা-মংলা পোর্ট রেলপথ ডিসেম্বরে চালু হবে : রেলপথ মন্ত্রী আয়মান আল-জাওয়াহিরি: আল-কায়েদা নেতা মার্কিন ড্রোন হামলায় নিহত হয়েছেন বলে খবর প্রচার বিবিসির আমেরিকাকে সরাসরি রাশিয়ার ‘প্রধান হুমকি’ বলে ঘোষণা দিল মস্কো যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছে চীন আমাদের গচ্ছিত অর্থ বিনা শর্তে অবিলম্বে ফেরত দিন: আমেরিকাকে তালেবান ‘ইসরাইল এখন আর লেবাননে আগ্রাসন চালানোর সাহস পায় না’
বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ০৫:৩৮ পূর্বাহ্ন

ভারতে মুসলিমদের উপর অর্থনৈতিক বয়কট কার্যকর করতে গ্রাম পর্যায়ে কমিটি গঠনের আহ্বান

মাহমুদ উল্লাহ / ৪৫ পঠিত
প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৫ জুলাই, ২০২২

হিন্দুত্ববাদীরা মুসলিম গণহত্যায় সকল শ্রেণীর হিন্দুদের শামিল করতে ভারতের আনাচে কানাচের রন্ধ্রে রন্ধ্রে মুসলিম বিদ্বেষ ছড়িয়ে দিচ্ছে। হিন্দুদের ঐক্যবদ্ধ করতে শহরগুলো পাশপাশি গ্রামেও চলছে বহুমুখী আয়োজন।

গত ০৩ জুলাই রবিবার হরিয়ানার মানেসারের একটি মন্দিরে জমা হওয়া একটি পঞ্চায়েত হিন্দু সমাজকে মুসলিমদের উপর নেতৃত্ব দেওয়ার দাবি করে। পঞ্চায়েত থেকে “মুসলিম দোকানদার এবং বিক্রেতাদের” অর্থনৈতিক বয়কটের আহ্বান জানানো হয়। পঞ্চায়েত হিন্দুদের নিজ নিজ গ্রামে বয়কট কার্যকর করার জন্য গ্রাম-স্তরের কমিটি গঠনের জন্য আহ্বান জানিয়েছে।

পঞ্চায়েতে হিন্দুত্ববাদী উগ্র বজরং দল এবং বিশ্ব হিন্দু পরিষদের (ভিএইচপি) সদস্য সহ ২০০ এরও বেশি উগ্র হিন্দু অংশ নিয়েছে। অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে মানেসার, ধারুহেরা এবং গুরগাঁওয়ের কাছাকাছি গ্রামের হিন্দুরা বেশি ছিল। পঞ্চায়েত উগ্র হিন্দুরা একজন ​​ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে একটি স্মারকলিপি পেশ করেছে, যাতে বলা হয়েছে যে কথিত অবৈধ তকমা লাগানো মুসলিমদের অবশ্যই উচ্ছেদ করতে হবে।

ভিএইচপি মানেসার-এর সাধারণ সম্পাদক উগ্রবাদী দেবেন্দর সিং বলেছে, “পঞ্চায়েতকে এই অঞ্চলের হিন্দু সমাজের পক্ষ থেকে ডাকা হয়েছিল যেন “ধর্মীয় মৌলবাদ” এবং “জিহাদি শক্তির” বিরুদ্ধে আওয়াজ তোলা যায়। সে হিন্দুদের ক্ষেপিয়ে তুলতে বলেছে, “হিন্দুদের হত্যা করা হচ্ছে… অনেক রোহিঙ্গা, বাংলাদেশি এমনকি পাকিস্তানিও তাদের আসল পরিচয় গোপন করে গুরগাঁও এবং মানেসারে অবস্থান করছে। তারা বিভিন্ন সেক্টরে ব্যবসা গড়ে তুলেছে। আমরা প্রশাসনকে এক সপ্তাহ সময় দিয়েছি তদন্ত করতে এবং তাদের চিহ্নিত করতে… যদি কোনো ব্যবস্থা না নেয়, তাহলে হিন্দু সমাজ ব্যবস্থা নেবে। আরেকটি পঞ্চায়েত বৃহত্তর পরিসরে ডাকা হবে এবং ভবিষ্যৎ কর্মপন্থা নির্ধারণ করা হবে।”

পঞ্চায়েতের বেশ কয়েকজন বক্তা মুসলিম বিক্রেতাদের অর্থনৈতিক বয়কটের আহ্বান জানিয়ে মানেসারে মুসলমানদের দ্বারা পরিচালিত অনেক জুসের দোকান এবং এবং সেলুনগুলো বর্জনের ডাক দিয়েছে। সে বলেছে, “অর্থনৈতিক বয়কটই একমাত্র সমাধান। তাদের ধর্মীয় মৌলবাদ ও জিহাদের কথা বিবেচনা করে আমাদের এই সিদ্ধান্ত নিতে হবে। গ্রামে কমিটি গঠন করতে হবে যারা আলোচনা করে ব্যবস্থা নিতে পারে। আমরা ইতিমধ্যে মানেসার থেকে এটি শুরু করেছি।”

হিন্দুত্ববাদীরা মুসলিমদের নির্মূল করার লক্ষ্যে সকল আয়োজন সম্পন্ন করছে। মুসলিম গণহত্যা বাস্তবায়নের জন্য বিভিন্ন প্রজেক্ট হাতে নিয়েছে। তাই চিন্তাশীল উলামায়ে কেরাম উপমহাদেশের মুসলিমদেরকেও ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন।

তথসূত্র:

1. ‘Run with names of Hindu deities’: Panchayat in Manesar calls for economic boycott of Muslim businesses
– https://tinyurl.com/3kue7jzj


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ