শিরোনাম
গুলিস্তানে তৈরি হতো ফোন, লেখা ‘মেড ইন চায়না-ফিনল্যান্ড’ বাংলাদেশকে ২৮৫৪ কোটি টাকা ঋণ দিলো বিশ্বব্যাংক ইউক্রেনকে অস্ত্র দেয়া বন্ধ করুন: পশ্চিমা বিশ্বকে ব্রিটিশ রাজনীতিক টাঙ্গাইলে বাবাকে মেরে মসজিদের মাইকে প্রচার, ছেলে আটক খুলনা-মংলা পোর্ট রেলপথ ডিসেম্বরে চালু হবে : রেলপথ মন্ত্রী আয়মান আল-জাওয়াহিরি: আল-কায়েদা নেতা মার্কিন ড্রোন হামলায় নিহত হয়েছেন বলে খবর প্রচার বিবিসির আমেরিকাকে সরাসরি রাশিয়ার ‘প্রধান হুমকি’ বলে ঘোষণা দিল মস্কো যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছে চীন আমাদের গচ্ছিত অর্থ বিনা শর্তে অবিলম্বে ফেরত দিন: আমেরিকাকে তালেবান ‘ইসরাইল এখন আর লেবাননে আগ্রাসন চালানোর সাহস পায় না’
বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ০৫:৫১ পূর্বাহ্ন

একাধিক পাকিস্তানি দূতাবাসের অ্যাকাউন্ট ব্লক করল টুইটার ইন্ডিয়া

সাহরিয়ার কবির / ১৯ পঠিত
প্রকাশের সময় : বুধবার, ২৯ জুন, ২০২২

একাধিক পাকিস্তানি কূটনৈতিক মিশন, সাংবাদিক ও বেশ কিছু বিশিষ্ট ব্যক্তিত্বের টুইটার অ্যাকাউন্ট ব্লক করেছে টুইটার ইন্ডিয়া। এর মধ্যে রয়েছে পাকিস্তানের তুরস্ক, মিশর, ইরান ও জাতিসঙ্ঘের দূতাবাসের অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্ট।
মঙ্গলবার পাকিস্তান ও ভারতের একাধিক সংবাদামাধ্যম এ তথ্য নিশ্চিত করে।

এর আগে, পাকিস্তানের জাতীয় সম্প্রচারকারী ‘রেডিও পাকিস্তান’-এর টুইটার অ্যাকাউন্টও সংস্থাটি নিষিদ্ধ করেছিল।

টুইটার ইন্ডিয়া অফিসিয়াল অ্যাকাউন্টগুলো বন্ধ করার পরে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় উদ্বেগ প্রকাশ করে টুইটারকে অবিলম্বে এই অ্যাকাউন্টগুলো পুনরুদ্ধার করার জন্য অনুরোধ জানায়। ভুয়া ও উত্তেজক খবর ছড়ানোর অভিযোগ এনে অ্যাকাউন্টগুলো বন্ধ করা হয়েছে বলে জানানো হয়।

টুইটার ইন্ডিয়াকে কটাক্ষ করে পাকিস্তান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, সোশ্যাল মিডিয়ার প্ল্যাটফর্মকে আন্তর্জাতিক নিয়ম অনুসরণ করে চলা উচিত। শুধু তাই নয়, পাকিস্তান সরকার প্রযুক্তি সংস্থাকে অবিলম্বে নিষিদ্ধ অ্যাকাউন্টগুলোতে অ্যাক্সেস পুনরুদ্ধার করার এবং বাক ও মত প্রকাশের গণতান্ত্রিক স্বাধীনতার আনুগত্য নিশ্চিত করার জন্য অনুরোধ করেছে।

জানা গেছে, দ্য নিউজ ও জিও নিউজের লন্ডন প্রতিবেদক মুর্তাজা আলি শাহ ও ভারতের কট্টোর সমালোচক অস্ট্রেলিয়ান সাংবাদিক সিজে ওয়ারলেম্যানসহ সাংবাদিকদের একাধিক টুইটার অ্যাকাউন্ট আইটি আইন ২০০০-এর আওতায় ব্লক করে দেয়া হয়েছে।

মুর্তাজা আলি শাহ-এর ভেরিভায়েড টুইটার অ্যাকাউন্টে ৫৫ লাখ ফলোয়ার্স রয়েছে। তিনি দ্য নিউজ ও জিও-এর সাথে ১৭ বছরের বেশি সময় ধরে সংযুক্ত আছেন।

সোমবার রাতে সাংবাদিক, সামাজিক সংগঠন, পাকিস্তানের রাষ্ট্রীয় রেডিও ও বিভিন্ন দূতাবাসের টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধের খবর প্রকাশ্যে আসার পর সাংবাদিকদের অধিকার নিয়ে কাজ করা আন্তর্জাতিক সংগঠন কমিটি টু প্রটেক্ট জার্নালিস্ট (সিজেপি) এই পদক্ষেপের নিন্দা জানায়।

সিপিজে এশিয়া টুইটারে এক বিবৃতিতে বলে, ভারত সরকারের অনুরোধে সাংবাদিক রানা আইয়ুবের অ্যাকাউন্ট ও কলামিস্ট সিজে ওয়ারলেম্যানের অ্যাকাউন্টের অ্যাক্সেস ব্লক করা করা হয়। যা সোশ্যাল মিডিয়াতে সেন্সরশিরেপর একটি নতুন প্রবণতার অংশ। এটি অগ্রহণযোগ্য।

সিপিজে এই প্রবণতা বন্ধ করার আহ্বান জানিয়ে বলে, গণতন্ত্র ও জনমতের জন্য সাংবাদিকদের কণ্ঠস্বর চালু রাখা অপরিহার্য।

এদিকে সাংবাদিক রানা আইয়ুব টুইটার থেকে পাওয়া বার্তার একটি স্ক্রিনশট শেয়ার করে লিখেন, ‘হ্যালো টুইটার, এটা কী?’

টুইটারে রানা আইয়ুবকে পাঠানো একটি বার্তায় বলা হয়, ভারতের স্থানীয় আইন মেনে চলা নিশ্চিত করার জন্য, আমরা তথ্য প্রযুক্তি আইন ২০০০-এর অধীনে ভারতে এই অ্যাকাউন্ট ব্লক করেছি।

সাংবাদিক রানা আইয়ুব ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন হিন্দু জাতীয়তাবাদী ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) সরকারের নীতির তীব্র সমালোচক। গুজরাট দাঙ্গা ও ভুয়া এনকাউন্টার বিষয়ে তিনি আট মাস অনুসন্ধান চালিয়ে প্রতিবেদন তৈরি করেছিলেন। এই তথ্যগুলো পরে ‘গুজরাট ফাইলস’ নামে বই আকারে প্রকাশিত হয়। ওই বইয়ে নরেন্দ্র মোদী ও অমিত শাহ সম্পর্কে অনেক তথ্য রয়েছে।

এর আগে টুইটার ভারতে অস্ট্রেলিয়ান সাংবাদিক ও কলামিস্ট সিজে ওয়ারলেম্যানের অ্যাকাউন্ট ব্লক করেছে। সিজে ওয়ারলেম্যান ইসলামোফোবিয়া ও সংখ্যালঘু, বিশেষ করে মুসলমানদের প্রতি ভারত সরকারের দুর্ব্যবহারের কট্টোর সমালোচক।

সিজে ওয়ারলেম্যান বলেছেন, নরেন্দ্র মোদির হিন্দু ফ্যাসিবাদী সরকারের অনুরোধে টুইটার ভারতে তার অ্যাকাউন্ট ব্লক করে।
উল্লেখ্য, কিছু দিন আগেই ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা, বৈদেশিক সম্পর্ক ও আইনশৃঙ্খলা সম্পর্কিত বিভ্রান্তি ছড়ানোর জন্য ছয়টি পাকিস্তান-ভিত্তিক চ্যানেলসহ ১৬টি ইউটিউব নিউজ চ্যানেলকে ব্লক করেছিল ভারতের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়। দেশটির মন্ত্রণালয় দাবি করেছিল, ওই ইউটিউব চ্যানেলগুলো ভারতে আতঙ্ক সৃষ্টি করতে ও সাম্প্রদায়িক বিভেদ সৃষ্টি করার লক্ষ্যে ভুয়া তথ্য উপস্থাপন করেছিল।

ব্লক করা ওই চ্যানেলেগুলির মধ্যে ছয়টি পাকিস্তান-ভিত্তিক ও ১০টি ভারত-ভিত্তিক ইউটিউব নিউজ চ্যানেল রয়েছে। যার দর্শকসংখ্যা ছিল ৬৮ কোটিরও বেশি।

সূত্র : উর্দু নিউজ, ওয়ান ইন্ডিয়া বেঙ্গলি, বাংলা হান্ট


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ