শিরোনাম
গুলিস্তানে তৈরি হতো ফোন, লেখা ‘মেড ইন চায়না-ফিনল্যান্ড’ বাংলাদেশকে ২৮৫৪ কোটি টাকা ঋণ দিলো বিশ্বব্যাংক ইউক্রেনকে অস্ত্র দেয়া বন্ধ করুন: পশ্চিমা বিশ্বকে ব্রিটিশ রাজনীতিক টাঙ্গাইলে বাবাকে মেরে মসজিদের মাইকে প্রচার, ছেলে আটক খুলনা-মংলা পোর্ট রেলপথ ডিসেম্বরে চালু হবে : রেলপথ মন্ত্রী আয়মান আল-জাওয়াহিরি: আল-কায়েদা নেতা মার্কিন ড্রোন হামলায় নিহত হয়েছেন বলে খবর প্রচার বিবিসির আমেরিকাকে সরাসরি রাশিয়ার ‘প্রধান হুমকি’ বলে ঘোষণা দিল মস্কো যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছে চীন আমাদের গচ্ছিত অর্থ বিনা শর্তে অবিলম্বে ফেরত দিন: আমেরিকাকে তালেবান ‘ইসরাইল এখন আর লেবাননে আগ্রাসন চালানোর সাহস পায় না’
বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ০৫:৩৭ পূর্বাহ্ন

১১৬ আলেমকে অপদস্ত করায় ‘ঘাদানিকে’র বিচার দাবিতে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবীদের বিক্ষোভ

/ ৫৩ পঠিত
প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২৪ মে, ২০২২

দেশের শীর্ষস্থানীয় ১১৬ জন আলেম-ওলামাকে অপদস্ত করায় একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির (ঘাদানিক) বিচার ও শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে আইনজীবীরা।

সোমবার দুপুরে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি ভবনের সামনে ভয়েস অফ লইয়ার্স বাংলাদেশের উদ্যোগে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিবাদ সমাবেশে অর্ধশতাধিক আইনজীবী অংশ নিয়ে দেশের শীর্ষস্থানীয় ১১৬ জন আলেমকে অপদস্ত করার প্রতিবাদ জানান তারা।

প্রদিবাদ সমাবেশে বক্তারা ১১৬ জন আলেমের বিরুদ্ধে দুদকের কাছে গণকমিশনের রিপোর্ট দেয়ার নিন্দা জানান। বক্তারা ইসলামের বিরুদ্ধে এবং দেশের আলেম-ওলামার বিরুদ্ধে একটি গোষ্ঠির অবস্থান নেয়ার প্রতিবাদ জানান।

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি আলহাজ গিয়াস উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন সংগঠনটির মুখপাত্র সাবেক সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল আশরাফুজ্জামান, সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের আইনজীবী মনির হোসেন, শাহ আহমেদ বাদল, জুলফিকার আলম শিমুল, জসীম উদ্দিন, সুলতান মাহমুদ, দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ।

সভাপতির বক্তব্যে গিয়াস উদ্দিন আহমেদ বলেন, ঘাদানিক ও গণকমিশন এইসব রিপোর্ট পেশ করে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা-হাঙ্গামার পায়তারা করছে। ইসলাম ও মুসলমানদের বিরুদ্ধে সারা পৃথিবীতে যে ষড়যন্ত্র হচ্ছে, তাদের দোসর হিসেবে এরা কাজ করছে। তিনি ঘাদানিক ও গণকমিশনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। একইসাথে আলেম-ওলামার বিরুদ্ধে দায়ের করা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও আটক আলেমদের অবিলম্বে মুক্তি দেয়ার দাবি জানান।

আশরাফুজ্জামান বলেন, ঘাদানিক ও গণকমিশনের রিপোর্টে যেসব মিথ্যা ও কূরুচিপূর্ণ ভাষা ব্যবহার করে আলেম-ওলামাকে হেয় প্রতিপন্ন করা হয়েছে তার প্রতিবাদ জানাই।

উল্লেখ্য, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি এবং সংখ্যালঘুদের অধিকার নিয়ে কাজ করা কিছু ব্যক্তি গণকমিশন গঠন করেন। গত ১২ মে দুদকে তারা যে শ্বেতপত্র দিয়েছেন তাতে ১১৬ জন আলেমের বিরুদ্ধে ‘ধর্মব্যবসা, সারাদেশে মৌলবাদী তৎপরতা, সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস, জ্বালাও-পোড়াও, অনিয়ম, দুর্নীতি ও মানি লন্ডারিংয়ের অভিযোগ করা হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ