রবিবার, ২৬ জুন ২০২২, ০২:৪০ অপরাহ্ন

অভয়নগরে প্রতিবন্ধী দুই বোন পেলো হুইলচেয়ার

আমিনুর রহমান (অভয়নগর) যশোর : / ৩২ পঠিত
প্রকাশের সময় : রবিবার, ১ মে, ২০২২

যশোরের অভয়নগরের শুভরাড়া ইউনিয়নের শুকপাড়া গ্রামে একই বাড়ীতে দু বোন প্যরালাইসিসে আক্রান্ত। স্থানীয় প্রিন্ট ও কয়েকটি অনলাইন পোর্টালে প্রতিবেদন প্রকাশের পর তারা দুইবোন পেলো হুইল চেয়ার উপহার। ৩০ এপ্রিল ২০২২ শনিবার বিকেল ৫টায় তাদের হাতে হুইল চেয়ার দুটি হস্তান্তর করা হয়। অভয়নগরের বিশিষ্ট সমাজসেবক ও আইনজীবী এ্যাড. মো. আব্দুল হামিদ উক্ত দুটি হুইল চেয়ার প্রদান করেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, পান্না ও পারুলা সুলতানা তারা দুবোন, ২০১৫ সাল থেকে তারা দুবোনই থ্যালাসেমিয়া জাতীয় রোগে আক্রান্ত হয়ে বিছানায় পড়ে আছে। শুভরাড়া ইউনিয়নের শুকপাড়া গ্রামের আতিয়ার শেখের বাড়ীতে গেলে দেখা যায়, তারা দুইবোন বারান্দায় খাটের উপর বসে আছে, হুইলচেয়ার বা ক্রেষ্ট না থাকায় নিজেরা চলতে পারছিলো না, সারাদিন তাদের কাটে বারান্দায় বসে থেকে রাস্তার দিকে তাকিয়ে। পান্না আধো আধো কথা বলতে পারলেও পারুলার কথা বলতে হয় অনেক কষ্টে।

দুবোনের সাথে কথা বলতে গেলে অঝোরে কেঁদে দিলো তারা। কাঁদতে কাঁদতে পান্না (২২) জানায়, সে ২০১৫ সালে এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিলো। ৮ টি বিষয়ে পরীক্ষা দেওয়ার পর আর পরীক্ষা দিতে পারেনি, তখন থেকে দু’পা অবশ হয়ে যায়। দারিদ্রের জাতা কলে পিষ্ট পরিবার । ভালো চিকিৎসা নিতে পারেনি তাই। আরেক বোন পারুলা (২৫) জানিয়েছেন ২০১৫ সালে বিবাহ হয় তার, বিয়ের দুমাস পরে হঠৎ দু’পা অকেজো হয়ে যায়। চিকিৎসায় সুস্থ না হওয়ায় সংসারও ভেঙ্গে যায় শেষে। সেই থেকে দু’বোন পিতার সংসারে বোঝা হয়ে আছে।

এ বিষয়ে পিতা আতিয়ার রহমান জানান, দুই মেয়ের ৭ বছরের চিকিৎসার ব্যয়ে তাঁর সবকিছু শেষ হয়ে গেছে। কাঁদতে কাঁদতে তিনি আরো জানান, দুইবোনের দু’টা হুইলচেয়ার কিনে দেওয়ার মত সংগতিও আর নেই তার। চার বোন আর এক ভাইয়ের মধ্যে পান্না ও পারুলা বাদে সকলে নিজ সংসার নিয়ে ব্যস্ত থাকায় চরম অবহেলায় দিন কাটছে ওদের।

স্থানীয় দৈনিক নওয়াপাড়াসহ কয়েকটি অনলাইন পত্রিকায় এই প্রতিবেদন পড়ে বিশিষ্ট সামাজিক ব্যক্তিত্ব উপজেলার বাশুয়াড়ী গ্রামের আনসার আলীর পুত্র এ্যাডঃ আঃ হামিদ সাহেব তাদের দুই বোনকে দুটো হুইলচেয়ার উপহার দেন। তারা এই সমাজের সহৃদয়বান এ্যাডঃ হামিদ সাহেবের কাছে চিরকৃতজ্ঞ থাকবে বলে জানায়। তারা তাদের চলাফেরার একটু ব্যবস্থা অচল হয়ে বসে থাকা দুই বোনের অসহায় চোখের পানি মুছাতে তাদের চিকিৎসার জন্য আরো কেউ এগিয়ে আসলে তারা তার নিকট চিরকৃতজ্ঞ থাকবে। তাদের চিকিৎসার জন্য সমাজের হৃদয়বান মানুষের কাছে এলাকাবাসীর আবেদন। পারুলাদের সাহায্যের বিকাশ নং ০১৮৪৫ ৭২ ৮২ ২০। (01845728220)

৩০ এপ্রিল শনিবার বিকেলে এ্যাড. হামিদ সাহেবের গ্রামের বাড়িতে তার অনুপস্থিতিতে দানকারীর পিতা মো. আনছার শেখ উক্ত দুটি হুইল চেয়ার প্রদান করেন। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন বাশুয়াড়ি হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক আবুল হোসেন, স্থানীয় ইউপি মেম্বর নুরুল ইসলাম সরদার, ভৈরব চিত্রা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি মাস্টার আমিনুর রহমান, সহ সভাপতি রবিউল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান ইরান, যুগ্ম সম্পাদক বিলাল হোসেন মাহিনী, কোষাধ্যক্ষ সব্যসাচী বিশ্বাস ও সাংবাদিক প্রনয় দাস প্রমুখ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ