শিরোনাম
মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ০৯:৫৩ অপরাহ্ন

লাহোর গুরুদ্বারকে মসজিদে রূপান্তরের উদ্যোগ, ভারতের তীব্র প্রতিবাদ

/ ৩৬৩ পঠিত
প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২৮ জুলাই, ২০২০

মিডিয়া ডেস্ক : লাহোরের একটি প্রাচীন ঐতিহাসিক গুরুদ্বারকে মসজিদে পরিণত করার উদ্যোগ নিয়েছে পাকিস্তান। পাক হাইকমিশনের কাছে এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে ভারত। সোমবার পাকিস্তান হাই কমিশনারের কাছে এই বিষয়ে তীব্র প্রতিবাদ জানায় নয়া দিল্লি।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব এক বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছেন, ‘লাহোরের গুরুদ্বার ‘শাহিদি আস্থানকে’ মসজিদে রূপান্তরিত করা হচ্ছে বলে আমরা খবর পেয়েছি।

লাহোরের নৌলাখা বাজারে অবস্থিত এই গুরুদ্বারটির সঙ্গে শহিদ ভাই তরু সিং-এর স্মৃতি জড়িত। এই গুরুদ্বারকে শাহিদ গঞ্জ মসজিদে পরিণত করার উদ্যোগ নিয়েছে পাকিস্তান। ভারত এই কাজের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে।’

অকালি দলের মুখপাত্র মনজিন্দর সিং সিরসা পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের উদ্দেশে টুইট করে বলেন, ‘চরমপন্থীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন। পাকিস্তানের চরমপন্থীরা শহিদি আস্থান সম্পূর্ণ ধ্বংস করে ফেলতে চায়। এই প্রচেষ্টা মৌলিক মানবাধিকারের বিরোধী। কোনো ব্যক্তিকে ধর্মাচরণের স্বাধীনতা থেকে বঞ্চিত করা যায় না। শহিদি আস্থানকে বেআইনি দখলদারদের থেকে মুক্ত করতে আপনি ব্যবস্থা নিন।’

গুরুদ্বার শাহিদি আস্থান ভাই তরু জি একটি ঐতিহাসিক স্থান। ১৭৪৫ সালে এখানে নিজের প্রাণ বিসর্জন দিয়েছিলেন ভাই তরু জি। শিখ ধর্মাবলম্বীদের কাছে এই স্থান অত্যন্ত পবিত্র। এই গুরুদ্বারকে মসজিদে পরিণত করার উদ্যোগের প্রতিবাদে জানিয়েছেন পাকিস্তানে বসবাসরত শিখরাও।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জানিয়েছেন, পাকিস্তানকে আমরা বলেছি, সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের নিরাপত্তা ও কল্যাণের জন্য ব্যবস্থা নিন। তাদের ধর্মীয় স্বাধীনতা ও সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য রক্ষায় উদ্যোগী হন।

কয়েকদিন আগে একটি প্রাচীন বুদ্ধ মূর্তি ভাঙার অভিযোগ ওঠে পাকিস্তানে। ইসলামবিরোধী বলে ওই মূর্তি ভাঙা হয়। বাড়ি তৈরির জন্য ভিত তৈরি করতে গিয়ে মাটির তলা থেকে বেরিয়ে আসে বুদ্ধ মূর্তি। আর সেই মূর্তিই ভেঙে ফেলেন পাকিস্তানের শ্রমিকেরা। পরে অবশ্য পাকিস্তান মূর্তি ভাঙার ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে।

সূত্র : এনডিটিভি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ