মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ১০:৫৬ পূর্বাহ্ন

অলস কোয়ারেন্টিনে যৌনতায় ব্যস্ত তাঁরা, নতুন ঝুঁকিতে অস্ট্রেলিয়া!

/ ৪৪৪ পঠিত
প্রকাশের সময় : শনিবার, ৪ জুলাই, ২০২০

মিডিয়া ডেস্ক : অস্ট্রেলিয়ায় হঠাৎ করে বাড়তে শুরু করেছে করোনার সংক্রমণ। নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন অনেকে। নতুন সংক্রমণের দুটি কারণ তুলে ধরা হয়েছে। বহু মানুষ দেশের বাইরে থেকে অস্ট্রেলিয়া আসছে, তাদের সবাই বাধ্যতামূলকভাবে হোটেলে কোয়ারেন্টিনে রয়েছে। কিন্তু কোয়ারেন্টিনের  নিয়ম যথাযথভাবে মেনে চলছে না তারা। সেই সঙ্গে বেড়েই চলেছে যৌনসম্পর্ক। অস্ট্রেলিয়ার বেশির ভাগ মানুষ লকডাউনের সুযোগ নিয়ে যৌনতায় সময় ব্যয় করছে।

মে মাসের শেষের দিক থেকে হঠাৎ করেই বাড়তে শুরু করেছে অস্ট্রেলিয়ার সংক্রমণ। এর কারণ হিসেবে কিছু বিষয় সামনে এসেছে। প্রথমত, হোটেলগুলো সঠিক নিয়ম মেনে চলেনি। অনেকেই ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিন মানেনি।
মেলবোর্নের একটি খ্যাতনামা হোটেল থেকে এক দিনে ৩১ জনের করোনা পজিটিভ এসেছে। সেই সাথে আরো দুটি হোটেল থেকে বেশ কয়েকজন পজিটিভ এসেছে। বলছেন, সময় কাটাতে যৌন কাজে নিজেদের ব্যস্ত রেখেছিলেন সবাই। কয়েকটা হোটেলও এ বিষয়ে সাহায্য করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, এ ঘটনায় দোষী প্রমাণিত হলে উপযুক্ত শাস্তি দেওয়া হবে। মেলবোর্নে নতুন করে আবার লকডাউন শুরু করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত সেখানে ৭৩০ জন করোনায় আক্রান্ত। আগামী দুই সপ্তাহের জন্য বাইরের দেশ থেকে কেউ অস্ট্রেলিয়ায় প্রবেশ করতে পারবে না। এ ছাড়া অস্ট্রেলিয়ার অন্য অঞ্চলে বসবাসকারী কেউ মেলবোর্নে আসতে চাইলে অনুমতি লাগবে। এখন পর্যন্ত বাইরে থেকে ৬০ হাজার অস্ট্রেলিয়ার বাসিন্দা দেশে ফিরেছে এবং তাদের কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে।

গবেষকরা বলছেন, এই করোনার সময়ে কারো সঙ্গে এই মুহূর্তে যৌন মিলন করাটা খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। শুধু তা-ই নয়, এই লকডাউনের সময় সবাই মানসিকভাবেও বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। গবেষকরা বলছেন, সেক্সের পর আমাদের মানসিক অবসাদ বাড়বে। কারণ আবেগের বশে একবার যৌন সম্পর্ক হয়ে গেলে সংক্রমিত হওয়ার আশঙ্কা ভাবিয়ে তুলবে সব সময়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ