শিরোনাম
আল্লামা শফীর ১৩ দফা বাস্তবায়নে পুনরায় সক্রিয় হচ্ছে হেফাজত সরকারবিরোধী আন্দোলন : বিএনপি নেতাকর্মীরা চাঙা তিন কারণে নারায়ণগঞ্জে আবারো গলাকাটা লাশ উদ্ধার গুলিস্তানে তৈরি হতো ফোন, লেখা ‘মেড ইন চায়না-ফিনল্যান্ড’ বাংলাদেশকে ২৮৫৪ কোটি টাকা ঋণ দিলো বিশ্বব্যাংক ইউক্রেনকে অস্ত্র দেয়া বন্ধ করুন: পশ্চিমা বিশ্বকে ব্রিটিশ রাজনীতিক টাঙ্গাইলে বাবাকে মেরে মসজিদের মাইকে প্রচার, ছেলে আটক খুলনা-মংলা পোর্ট রেলপথ ডিসেম্বরে চালু হবে : রেলপথ মন্ত্রী আয়মান আল-জাওয়াহিরি: আল-কায়েদা নেতা মার্কিন ড্রোন হামলায় নিহত হয়েছেন বলে খবর প্রচার বিবিসির আমেরিকাকে সরাসরি রাশিয়ার ‘প্রধান হুমকি’ বলে ঘোষণা দিল মস্কো
শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০৮:২৯ পূর্বাহ্ন

ভারত-চীন উত্তেজনা: লাদাখের আকাশে ভারতীয় বিমানবাহিনীর ব্যাপক তৎপরতা

/ ৪৬৯ পঠিত
প্রকাশের সময় : শনিবার, ২০ জুন, ২০২০

প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর উড়েছে হেলিকপ্টার

পূর্ব লাদাখের গলওয়ান উপত্যকায় ভারত ও চীনের মধ্যে সীমান্ত সংঘর্ষকে কেন্দ্র করে সংশ্লিষ্ট এলাকায় প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর চিনুক কার্গো হেলিকপ্টার এবং অ্যাপাচে অ্যাটাক হেলিকপ্টার উড়েছে। এছাড়া পি-৮ সার্ভেইলেন্স এয়ারক্র্যাফ্ট (নজরদার বিমান) এবং আইএল-৭৬ স্ট্র্যাটেজিক এয়ারলিফ্টারকেও (কার্গো বিমান) লাদাখের আকাশে উড়তে দেখা গেছে বলে আজ (শুক্রবার) গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়েছে।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় ট্যাকটিকাল এয়াললিফ্টার বিমান সি-১৩০জে সুপার হারকিউলিকেও শুক্রবার সকালে লাদাখের আকাশে দেখা গেছে এবং এগুলো দৌলত বেগ ওল্ডির বিমানঘাঁটিতে নেমেই আবার তা উড়ে গেছে বলেও খবর প্রকাশিত হয়েছে।

প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞ ও সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত কর্নেল সৌমিত্র রায়ের মতে, পি-৮ নজরদার বিমান এবং অ্যাপাচে অ্যাটাক হেলিকপ্টার সীমান্ত বরাবর ওড়ানোর উদ্দেশ্য সীমান্তে ‘এয়ার ডমিন্যান্স’ শুরু করল ভারত। প্রতিপক্ষের দিক থেকে কোনও আগ্রাসনের চেষ্টা হলেই আকাশ থেকেই তার পাল্টা জবাব দেওয়া হবে। এছাড়া রসদ ও বাহিনী নিয়ে যেসব কপ্টার ও বিমান সীমান্তবর্তী বিমানঘাঁটির দিকে যাচ্ছে, সেগুলোকে সুরক্ষা দেওয়া হবে।

লাদাখের পথে ভারতীয় সেনাবাহিনী

ভারত-চীন সীমান্তে চলমান সংঘাতের মধ্যে যেকোনও পরিস্থিতি মোকাবেলায় ভারতীয় সেনাবাহিনী সতর্ক অবস্থায় রয়েছে। এরইমধ্যে বিমানবাহিনীর প্রধান আরকেএস ভাদোরিয়া লেহ ও শ্রীনগর বিমানঘাঁটি পরিদর্শন করেছেন। লেহ-লাদাখ অঞ্চলে বিমানবাহিনী বর্তমানে সতর্ক অবস্থায় থাকায় বিমান বাহিনীর প্রধানের ওই সফর গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে।

গণমাধ্যমের একটি সূত্রে প্রকাশ, লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর ২১টি গ্রামকে ব্ল্যাকআউট করা হয়েছে। বেশিরভাগ গ্রাম গত একমাস ধরে সতর্ক পরিস্থিতিতে রয়েছে। কিন্তু গত সোমবার চীনাবাহিনীর হাতে ভারতীয় ২০ সেনা সদস্য নিহত হওয়ার পরে গোটা এলাকায় উচ্চসতর্কতা জারি করা হয়েছে।

সোমবার রাতে গলওয়ান উপত্যকায় ভারত ও চীনের সেনা সংঘর্ষের পরে বিমানবাহিনীর ওই তৎপরতা অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছেন সামরিক বিশেষজ্ঞরা।

সূত্র : পার্সটুডে


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ