শিরোনাম
ভারতে শাতেমে রাসূলের উচিত শিক্ষা দিয়েছেন নবী প্রেমিক দুই মুসলিম যুবক! ‘দা কাশ্মীর ফাইলস’ যেভাবে মুসলিমদের জন্য ভারতের ভূমিকে সঙ্কুচিত করে দিয়েছে ইউক্রেনে বিপণী কেন্দ্রে ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় : হতাহত বেড়ে ৫০ তুরস্কে সমকামী কর্মীদের ‘প্রাইড মার্চ’ আটকাতে গ্রেফতার ২০০ ইরান-ইসরায়েল ছায়াযুদ্ধ কি সরাসরি বাস্তব যুদ্ধে রূপ নিতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রে নারীদের গর্ভপাতের সাংবিধানিক অধিকার বাতিল কেন সৌদি যুবরাজের ঘনিষ্ঠ হতে উদগ্রীব এরদোগান? ইসরাইল, আমিরাত, যুক্তরাষ্ট্র ও ভারত মিলে ইসলাম বিদ্বেষীদের নতুন জোট গঠন কেনিয়ার লামু জেলা এখন সম্পূর্ণ আল-কায়েদার নিয়ন্ত্রণে রাশিয়ার দখলে সেভেরোদোনেস্ক
বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ০৬:২৭ পূর্বাহ্ন

ফ্রান্সে স্কুল খুলতেই করোনায় আক্রান্ত হল প্রাইমারিতে পড়ুয়া ৭০ জন শিশু শিক্ষার্থী !

/ ৩৫৪ পঠিত
প্রকাশের সময় : সোমবার, ২৫ মে, ২০২০

কবির আহমেদ  

মহামারী করোনাস ভাইরাসের লকডাউন শেষে স্কুল খুলতেই ফ্রান্সে ৭০ জন নার্সারি ও প্রাইমারিতে পড়ুয়া শিশু করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। সোমবার (১৮ মে) এমনটাই জানিয়েছেন দেশটির শিক্ষামন্ত্রী জিয়ান মাইকেল ব্লানকোয়ের। এই ঘটনার পর বিদ্যালয়গুলো জরুরিভিত্তিতে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।                                          

শিক্ষামন্ত্রী বলেছেন, “লকডাউনের পর প্রথমবার বিদ্যালয়ে ফেরে শিশুরা। ভালোই কাটছিলো তাদের দিন। কিন্তু সোমবার থেকে আবার সতর্কতা জারি করতে হল। শিশুরা আক্রান্ত হতে পারে এটা ছিল অনিবার্য। যদিও খুব বেশি শিশু আক্রান্ত হয়নি। যেসব বিদ্যালয়ের শিশুরা আক্রান্ত হয়েছে সেগুলো জরুরিভিত্তিতে বন্ধ করা হয়েছে।

অন্যান্য বিষয়ে কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে।” লকডাউন তোলার পর ১১ মে থেকে খোলে ফ্রান্সের ৪০ হাজার নার্সারি ও প্রাথমিক বিদ্যালয়। লম্বা বিরতির পর ১৪ লাখ শিশু ফেরে বিদ্যালয়ের আঙিনায়। মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৫০ হাজার ছাত্র-ছা’ত্রীরাও সোমবার (১৮) থেকে যেতে শুরু করেছে ক্লাসে। একই দিন ৭০ জন নার্সারি ও পাই’মা’রিতে পড়ুয়া শিশু করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর জানায় সরকার।                            

এরপর কি আর ফ্রান্সের বাবা-মায়েরা তার শিশুদের বিদ্যালয়ে পাঠানোর সাহস পাবেন? যদিও সবগুলো বিদ্যালয় প্রতি শ্রেণিকক্ষে সর্বোচ্চ ১৫ জন, নির্দিষ্ট দূরত্ব, স্বাস্থ্যবিধি ও অন্যান্য বিষয়গুলো মেনেই ক্লাস চালু করেছে।

কিন্তু অধিকাংশ শিশু বাইরে থেকে অর্থাৎ তাদের পরিবারের কোনো সদস্যের মাধ্যমে আক্রান্ত হয়ে বিদ্যালয়ের অন্য বাচ্চাদের আক্রান্ত করেছে কিনা তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ