শিরোনাম
মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ০৮:৪৩ অপরাহ্ন

আফগানিস্তানে মসজিদে হামলা : নিহত অন্তত : ৯ আহত : ১০

/ ৩৭৯ পঠিত
প্রকাশের সময় : বুধবার, ২০ মে, ২০২০

আওয়ার মিডিয়া : আমেরিকার সঙ্গে তালিবানদের শান্তিচুক্তি হয়েছে। চুুুুুুুক্তির কথা মাথায় রেখে, ঘরমুখী মার্কিন সেনাও। কিন্তু, আফগান সেনার সঙ্গে তালিবানদের সংঘাত থামেনি এখনো। প্রতিনিয়ত বিস্ফোরণ, হামলায় প্রাণ যাচ্ছে নিরীহ মানুষের। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় হামলা হল মসজিদে।

আফগানিস্তানের পারওয়ান প্রদেশের রাজধানী চারেকারের একটি মসজিদে বন্দুক হামলায় কমপক্ষে নয় জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছে কমপক্ষে ১০ জন। নমাজ আদায়ের সময় নিরীহ নাগরিকদের উপর অতর্কিতে এই হামলা চালানো হয়। আফগান কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে এমনটি জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।

তালিবানেরা এই হিংসার দায় আফগান নিরাপত্তা বাহিনীর উপর চাপিয়েছে। তালিবান নেতাকে উদ্ধৃত করে আফগানিস্তানের প্রথম সারির একটি সংবাদ সংস্থায় দাবি করা হয়, নিরাপত্তা বাহিনীই এই হামলার জন্য দায়ী।
সূত্রের খবর, চারিকর শহরের খালা জায়িতে পারওয়ান মসজিদে ঢুকেছিল বন্দুকবাজেরা।

তালিবানদের মুখপাত্র জবিউল্লাহ মুজাহিদ ‘খাম্মা প্রেস’-এর কাছে দাবি করে, নিরাপত্তা বাহিনীর জওয়ানরা ঢুকেই নিরীহদের গুলিতে ঝাঁঝরা করেছে। এদিনের ঘটনায় তালিবানদের কোনও যোগ নেই।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের অক্টোবরে আফগানিস্তানেরই পশ্চিমাঞ্চলে এক মসজিদে জুমার নামাজের সময় বিস্ফোরণে কমপক্ষে ৬২ জন নিহত হয়েছিলেন। নানগাহার প্রদেশের গভর্নর আয়াতুল্লাহ খোগিয়ানি সেসময় জানান, মসজিদে প্রার্থনায় আসা নিরীহ মানুষের উপর হামলা হয়।

হাসকা মেনা জেলায় জওদারা এলাকার ওই মসজিদের ভিতরে আগে থেকেই বোমা মজুদ করে রাখা হয়েছিল। বিস্ফোরণের তীব্রতায় মসজিদটির ছাদ সম্পূর্ণ উড়ে যায়। এক বছর আগের ওই হামলার দায়ও কেউ স্বীকার করেনি। তবে, আফগান প্রেসিডেন্টর মুখপাত্র এই হামলার জন্য তালিবানদেরই অভিযুক্ত করেছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ