শিরোনাম
গুলিস্তানে তৈরি হতো ফোন, লেখা ‘মেড ইন চায়না-ফিনল্যান্ড’ বাংলাদেশকে ২৮৫৪ কোটি টাকা ঋণ দিলো বিশ্বব্যাংক ইউক্রেনকে অস্ত্র দেয়া বন্ধ করুন: পশ্চিমা বিশ্বকে ব্রিটিশ রাজনীতিক টাঙ্গাইলে বাবাকে মেরে মসজিদের মাইকে প্রচার, ছেলে আটক খুলনা-মংলা পোর্ট রেলপথ ডিসেম্বরে চালু হবে : রেলপথ মন্ত্রী আয়মান আল-জাওয়াহিরি: আল-কায়েদা নেতা মার্কিন ড্রোন হামলায় নিহত হয়েছেন বলে খবর প্রচার বিবিসির আমেরিকাকে সরাসরি রাশিয়ার ‘প্রধান হুমকি’ বলে ঘোষণা দিল মস্কো যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছে চীন আমাদের গচ্ছিত অর্থ বিনা শর্তে অবিলম্বে ফেরত দিন: আমেরিকাকে তালেবান ‘ইসরাইল এখন আর লেবাননে আগ্রাসন চালানোর সাহস পায় না’
শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৭:২৫ পূর্বাহ্ন

স্মৃতিকথা….. বৃষ্টি ভেজা রাত

/ ১১৭১ পঠিত
প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১৬ এপ্রিল, ২০২০

আনীস বিন সাইফ

রাত সাড়ে আটটা । হাসপাতালের সামনের বারান্দায় দাঁড়িয়ে আছি। বাইরে টিপটিপ বৃষ্টি পড়ছে। গাড়ির হেডলাইটের আলোয় বৃষ্টির ফোঁটাগুলো জীবন্ত হয়ে উঠছে যেন। কুচকুচে কালো পিচঢালা রাস্তার পাথরে বুকে পড়ে চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ছে অসংখ্য ফোঁটা। অদৃশ্য এক আকর্ষণ আমাকে ডাকছে। অনেকক্ষণ যাবত দেখছিলাম । মাঝে মাঝে বিজলীর আলোয় আকাশের কিছু অংশ দেখা যাচ্ছে ।

কোথাও মেঘ ঘন কালো। আবার কোথাও ফিকে হয়ে গেছে । তবুও থেমে নেই। ছুটে চলছে অজানার উদ্দেশ্যে । একপা দুপা করে বেরিয়ে এলাম। নয় তলা বিল্ডিং এর বারান্দা থেকে সোজা মহাসড়কে। খিলগাঁওয়ের অভিজাত এলাকা।গায়ে আলতো পরশ বুলাচ্ছে বৃষ্টির কণাগুলো। পাকা রাস্তায় পড়ে ছোট ছোট কণা ছড়িয়ে পড়ছে দিগ্বিদিক । পায়ে এসে লাগছে কিছু ।সাথে বালিও আসছে ছিটে ।

তাই ফুটপাত ধরে হাঁটতে লাগলাম। দু’পাশে দুটি করে লাল টালির মাঝে একটি হলুদ টালি মহাসড়কের আইল্যান্ডের মতোই এগিয়ে গেছে। বা পাশে বড় বড় এবং প্রসিদ্ধ কিছু ফার্নিচারের শোরুম ।বারবার শুধু একজনের কথা মনে পড়ছিল । মনে হচ্ছিল তার কিছু স্বভাব এখন আমার মধ্যে হাজির হয়েছে। বৃষ্টিতে ভিজে রাস্তায় হাঁটা এর অন্যতম ।

ফুটপাথ ছেড়ে মেইন রোডে নামলাম। ফুটপাত ঘেঁষে সারি সারি গাড়ি পার্ক করা ।আমার ডান পাশ দিয়ে আপন গতিতে ছুটে যাচ্ছে নানা রকম গাড়ি। চাকার সাথে ছুটে চলছে অসংখ্য জলকণা পিছনের গাড়ির হেডলাইটের আলোয় যা স্পষ্টই চোখে পড়ছিল। বৃষ্টিস্নাত পিচঢালা রাস্তায় গাড়ির চাকাগুলো অন্য রকম এক সুর তৈরি করছে।

বৃষ্টির ফোঁটা গায়ে মাখছি। আর হাঁটতে হাঁটতে ভাবনার জগতে হারাচ্ছি । বৃষ্টির গতি কম হওয়ায় পুরোপুরি ভেজাতে পারছে না, তবে শীতল স্পর্শে সিক্ত করছে আমাকে। হাঁটছি তো হাঁটছিই! ফ্লাইওভারের দিকে এগুচ্ছি।

ফিরতে মন চাচ্ছে না। কিছু একটা আমাকে টেনে নিয়ে যাচ্ছে সামনের দিকে। হঠাৎ হাঁটার গতি থেমে গেল । শাহী মসজিদে এশার জামাত চলছে । ভেসে আসছে সূরা আ’লার সুমধুর তেলাওয়াত! আর এগুলাম না । অজু করে নামাজে দাঁড়ালাম।

নামাজ শেষে আবার সেই বৃষ্টিতে ভিজে হাঁটা ! কীএমন আকর্ষণ আছে বৃষ্টির এই ছোট মুক্তোদানায়? আকাশ থেকে যখন বর্ষন শুরু হয় মন আনচান করে ওঠে। ফোঁটাগুলোর কোমল পরশ পেতে ছুটে যাই খোলা আকাশের নিচে!!!


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ