রবিবার, ২৬ জুন ২০২২, ০২:৩৭ অপরাহ্ন

ত্রাণের চাল চুরিই যখন সরকারি আমলা-কর্তাদের কাজ

/ ৪১২ পঠিত
প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২০

সানাউল্লাহ

করোনা ভাইরাসের কারণে পুরো বিশ্ব যেখানে অচল,গোটা পৃথিবীর মানুষ যখন সমস্ত পাপকর্ম ছেড়ে তওবা-ইস্তেগফার করে ভালো হবার পথে…সেই মূহুর্তে আমাদের কিছু বাঙ্গালী ভাইয়েরা নিজেদের হীনস্বার্থ চরিতার্থ করার জন্য যে কোন ধরনের অপকর্ম করতে প্রস্তুত হয়ে আছে। দায়িত্ববোধের কথা বাদই দিলাম,মানুষ হিসেবে যে মানবিক গুণটা থাকার প্রয়োজন ছিল, তার যৎসামান্য ও যদি থাকতো আমাদের এই দূর্ভাগা ভাইদের মধ্যে।

ত্রাণ নিয়ে দুর্নীতি না করার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বারংবার নির্দেশনা থাকলেও এই করোনাভাইরাস পরিস্থিতির মধ্যেও থেমে নেই ত্রাণের চাল চুরি। চাল চুরির ঘটনায় স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরাই বেশি জড়িত বলে অভিযোগ আছে। তাদের অনেকের বিরুদ্ধেই মামলা হয়েছে, অনেকেই পলাতক আছেন।

সারা দেশে গত কয়েক দিনে অন্তত ২ হাজার ২৬৪ বস্তারও বেশি সরকারি ত্রাণের চাল চুরির অভিযোগ পাওয়া গেছে। ৩০ মার্চ থেকে ১২ এপ্রিল পর্যন্ত ঘটে যাওয়া ত্রাণের চাল চুরির বিশেষ একটি পরিসংখ্যান এখানে উল্লেখ করা হলো।

স্থানীয় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও স্থানীয় গণমাধ্যকর্মীদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যমতে এ পর্যন্ত পাথরঘাটা উপজেলায় ৫৫০ বস্তা, বগুড়ায় ১০০ বস্তা, নাটোরে ১৩ বস্তা, জয়পুরহাটে ৭ বস্তা, যশোর ৮০ বস্তা, যশোরের মণিরামপুরে ৫৫৫ বস্তা, ঝিকরগাছায় ১ বস্তা, নওগাঁয় ৩৩৮ বস্তা, বাগেরহাটে ১৮ বস্তা, পটুয়াখালীতে ১০ বস্তা, ঝালকাঠিতে ৫০ বস্তা, সিলেটে ১২৫ বস্তা, ময়মনসিংহের ত্রিশালে ১৬ বস্তা, সারিয়াকান্দি উপজেলায় ২৮৮ বস্তা, গাবতলী উপজেলায় ১০০ বস্তা, বগুড়ার শিবগঞ্জ ১৩ বস্তা চাল চুরির তথ্য পাওয়া গেছে।

৩০ মার্চ : পটুয়াখালীতে ভিজিএফ-এর ১০ বস্তা চাল চুরি করেছিলেন সদর উপজেলার কমলাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মনির হোসেন। ওই দিন ১০ বস্তা চাল বিক্রয়কালে পুলিশ হাতে নাতে চেয়ারম্যানের প্রতিনিধি বশির শিকদার ও সোহাগকে আটক করে জেলে পাঠায়। পরে এ মামলার প্রধান আসামি ইউপি চেয়ারম্যান মনির হোসেনকেও গ্রেপ্তার করা হয়।

৩ এপ্রিল : সিলেটের কাউন্সিলর এ কে এ লায়েকের মুন্সিপাড়া বাসা থেকে ১২৫ বস্তা চাল উদ্ধার করা হয়। সিসিকের দুই কর্মকর্তা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ বিভাগের সাব ইন্সপেক্টর হুমায়ন কবীর ও পিন্টু রায় এই চাল উদ্ধার করেন। একই দিন ৩ এপ্রিল বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলার তাফালবাড়ি বাজারের একটি দোকানে অভিযান চালিয়ে পুলিশ ১৮ বস্তা সরকারি চাল উদ্ধার করে।

২ এপ্রিল : নওগাঁর রাণীনগর এলাকায় আয়াত আলী (৬০) নামে এক আওয়ামী লীগ নেতার বাড়ি থেকে ৩৩৮ বস্তা সরকারি ত্রাণের চাল উদ্ধার করা হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আল মামুনের নেতৃত্বে থানা পুলিশের সহায়তায় এসব ত্রাণের চাল উদ্ধার করা হয়। আয়াত আলী কালিগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য।

ময়মনসিংহের ত্রিশালে খাদ্য অধিদপ্তর কর্তৃক পরিচালিত ‘হতদরিদ্রদের জন্য খাদ্য বান্ধব কর্মসূচি’র ১৬ বস্তা চাল চুরির অভিযোগ পাওয়া যায় স্থানীয় ডিলার আবু খালেকের বিরুদ্ধে।

২ এপ্রিল : উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোস্তাফিজুর রহমান ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) তরিকুল ইসলাম তুষারের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে এ চাল উদ্ধার করা হয়।

৩ এপ্রিল : বরগুনা জেলার পাথরঘাটা উপজেলার কাকচিড়া ইউনিয়নে জেলেদের ভিজিএফ চাল চুরির অভিযোগে চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন পল্টুকে আটক করে পুলিশ।

পাথরঘাটা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোস্তফা গোলাম কবির জানান, চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন পল্টুর এলাকায় বরাদ্দকৃত ৪৪ মেট্রিক টন চালের মধ্যে মাত্র সাড়ে ১৬ মেট্রিক টন চাল বিতরণের সঠিক প্রমাণ দিতে পেরেছে। বাকি সাড়ে ২৭ (৫৫০ বস্তা) মেট্রিক টন চাল বিতরণের কোনো সঠিক প্রমাণ দিতে পারেনি তিনি।

৪ এপ্রিল : যশোরের মণিরামপুর উপজেলায় সরকারি গুদাম থেকে চুরি হওয়া ৫৫৫ বস্তা চাল উদ্ধার করেছে উপজেলা প্রশাসন। পৌর এলাকার বিজয়রামপুরের ভাই ভাই রাইস মিলের গুদাম থেকে কাজের বিনিময়ে খাদ্য (কাবিখা) প্রকল্পের এই চাল জব্দ করা হয়।

৬ এপ্রিল : ঝালকাঠি সদর উপজেলার বাসন্ডা ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য ও জেলা মেম্বারস ফোরামের সভাপতি মো. মনিরুজ্জামান মনিরের বিরুদ্ধেও ৫০ বস্তা চাল চুরির অভিযোগ পাওয়া যায়। একই দিন ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে মেম্বার মনিরুজ্জামান মনিরের বাড়ি থেকে চুরি করা ত্রাণের এই চাল উদ্ধার করা হয়। মনির এখন পলাতক।

৭ এপ্রিল : ৭ এপ্রিল যশোর শহরতলীর শানতলায় এক গুদামে অভিযান চালিয়ে সরকারি ৮০ বস্তা চাল জব্দ করেছে স্থানীয় ডিবি পুলিশ।

ডিবি পুলিশের ওসি মারুফ আহম্মদ জানান, ঘটনাস্থল থেকে রাকিব হাসান শাওন ও হাসিবুল হাসান নামে দুই যুবককে আটক করা হয়।

যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার ১০নং শঙ্করপুর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার ইজান চুরি করেন ১ বস্তা চাল।

নাটোরের সিংড়া উপজেলার সুকাশ ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড সদস্য ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহিন শাহের বিরুদ্ধে ত্রাণের ১৩ বস্তা চাল চুরির অভিযোগ আছে।

এই অভিযোগের ভিত্তিতে ৭ এপ্রিল ১৩ বস্তা চালসহ ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা ও ইউপি সদস্যসহ তিনজনকে আটক করে উপজেলা প্রশাসন। তাদের বিরুদ্ধে সিংড়া থানায় মামলা করা হয়েছে বলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাসরিন বানু জানান।

জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার গোপীনাথপুর বাজার চাল চুরির অভিযোগে গোপীনাথপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ সাইদুর ও তার শ্যালক আনোয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

গাবতলী উপজেলার মহিষাবান ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম অভিযোগ করেন, হতদরিদ্রদের খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির ১০০ বস্তা চাল ভুয়া মাস্টার রোল তৈরি করে আত্মসাৎ করেছেন মহিষাবান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ডিলার মো. ওয়াজেদ হোসেন। এ ঘটনায় ওয়াজেদ হোসেনকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে ভুয়া মাস্টার রোল তৈরি করে ২৮৮ বস্তা চাল চুরি করেন কুতুবপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ওই ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান গাজিউল হক গাজী।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাসেল মিয়া জানান, ৭ এপ্রিল ডিলার গাজী তার অপরাধ স্বীকার করলে ভ্রাম্যমাণ আদালতে তাকে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন।

বোরহানউদ্দিন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন হায়দারের বিরুদ্ধে চাল চুরির অভিযোগ উঠে। জেলেদের জন্য বরাদ্দকৃত চাল সরিয়ে নেওয়ার অভিযোগ পেয়ে তা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানান স্থানীয় সাংবাদিক সাগর চৌধুরী। এ অপরাধে সাংবাদিক সাগরকে শারীরিক নির্যাতন ও মিথ্যা মামলা দেন জসিম উদ্দিন হায়দারের ছেলে নাবিল হায়দার। পরে অবশ্য সাগর চৌধুরীকে নির্যাতনের ঘটনায় জড়িত অভিযোগে পুলিশ ছাত্রলীগ নেতা নাবিল হায়দারকে গ্রেপ্তার করেছে।

একই ঘটনা ঘটে চাঁদপুরে। মতলব দক্ষিণ উপজেলার নায়েরগাঁও দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও এক সদস্যের বিরুদ্ধে চাল চুরির অভিযোগ পাওয়া যায়। জাটকা রক্ষা কর্মসূচির আওতায় কর্মহীন নিবন্ধিত জেলেদের জন্য বরাদ্দ করা চাল বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে।

১১ এপ্রিল : শনিবার শিবগঞ্জ উপজেলার সৈয়দপুর ইউনিয়নের গনকপাড়া গ্রামের মোস্তাফিজার রহমানের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ১০২ বস্তা চাল উদ্ধারসহ তাকে আটক করে। সৈয়দপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম সাজু কালোবাজারে বিক্রির জন্য ডিলারের কাছ থেকে চালগুলো কিনে তার মামাতো ভাই মোস্তাফিজারের বাড়িতে মজুদ রাখে। এ জন্য সাজুকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

আর এর আগে সারিয়াকান্দি উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান গাজিউল হক গাজী খোলা বাজারে ১০ টাকা কেজি দরের ২১২ বস্তা চাল নিজের গুদামে মজুদ রাখার জন্য ভ্রাম্যমাণ আদালত তাকে এক মাসের কারাদণ্ড প্রদান করেন।

১২ এপ্রিল : নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে চাল চুরির অভিযোগে পিরোজপুর ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য কবির হোসেনকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে স্থানীয় সরকার বিভাগ। মন্ত্রণালয়ের উপসচিব স্বাক্ষরিত বরখাস্তের একটি চিঠি আজ রবিবার সন্ধ্যায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে এসে পৌঁছে।

প্রজ্ঞাপনে জানানো হয় নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৮নং ওয়ার্ডের সদস্য কবির হোসেন করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট সংকট মোকাবেলায় সরকার কর্তৃক প্রদত্ত ত্রাণ বিতরণ না করে আত্মসাৎ এবং গুজব ছড়ানোর মাধ্যমে সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার অভিযোগে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার প্রস্তাব মোতাবেক স্থানীয় সরকার বিভাগের ১২ এপ্রিল, ২০২০ তারিখের ৩৬৬নং স্মারকের প্রজ্ঞাপনে জনস্বার্থে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে এবং আগামী ১০ দিনের মধ্যে তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ খণ্ডাতে না পারেন তাহলে তাকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবে।

এদিকে রাঙামাটির বরকল উপজেলার ভূষণছড়া ইউনিয়নের অসহায় মানুষের জন্য সরকারের দেওয়া ত্রাণের ৬৩ বস্তা চাল (প্রতি বস্তা ৩০ কেজি) চুরি করেছে ওই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও একই ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আবু সাইদ।

গতকাল রোববার (১২ এপ্রিল) সকালে স্থানীয়রা একই এলাকার দোকানদার হাজী রফিকুল ইসলামের দোকানে ত্রাণের চাল বিক্রি করতে দেখে বিষয়টি জানতে চাই। তখন দোকানদার জবাবে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা ও ইউপি সদস্য আবু সাইদের নাম বলেন। তিনি এসব চাল বিক্রি করার জন্য তাকে দিয়েছেন বলে জানান। পরে স্থানীয়রা গোয়েন্দা বিভাগের লোকজনকে খবর দিলে তারা ঘটনাস্থলে চালগুলো জব্দ করে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ